মুখস্থ করে শেখা কিভাবে আপনার শিশুর সৃজনশীলতা কে প্রভাবিত করছে

অনেক লোকই বিশ্বাস করে যে অধ্যায় একাধিক বার পুনরাবৃত্তি করলে ছাত্ররা সেটি তাড়াতাড়ি স্মরণ করতে সক্ষম হবে| শেখার এই পদ্ধতিটিকে বলা হয় “মুখস্থ করে শেখা”| অনিতা আকাই হ্যামিল্টনে ম্যাকমাস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ে স্বাস্থ্য বিজ্ঞান শিক্ষার একজন স্নাতকোত্তর ছাত্রী, বললেন যে, "মুখস্থ করলে আপনি ভালোভাবে শিখতে পারবেন সেরূপ কোন প্রমাণ নেই| শেখার ক্ষেত্রে এটি হল এক ধরনের দ্রুত এবং অস্থায়ী সমাধান|"[1]

বর্ণালীর অপর প্রান্তে রয়েছে ইন্টারেক্টিভ শিক্ষণ, একটি কৌশল যেটি ছাত্রদের পাঠের সঙ্গে বিজড়িত হওয়ার জন্য, ধারণাগুলি বোঝা এবং তারপর সেগুলিকে তাদের দৈনন্দিন জীবনে প্রয়োগ করার জন্য উৎসাহিত করে|
যদিও উভয় শিক্ষণ পদ্ধতির নিজের সুবিধা রয়েছে, তবুও এই প্রবন্ধটি এটি অন্বেষণ করে যে মুখস্থ করে শেখা কিভাবে সৃজনশীল চিন্তনকে প্রভাবিত করে|

তাহলে মুখস্থ করে শেখা কিভাবে কোন শিশুর সৃজনশীল চিন্তাধারার দক্ষতাকে প্রভাবিত করে?

সৃজনশীলতা হল সমস্যা অথবা ধারণার জন্য নতুন, বাস্তবিক, অদ্বিতীয় সমাধান অন্বেষণ করার ক্ষমতা| এটি বিপথগামী চিন্তাধারার ব্যবহার করে, যেটিতে অনেক সম্ভাব্য সমাধানের মাধ্যমে সমস্যাগুলির সমাধান করা হয়, যেটি অভিসারী চিন্তাধারার বিরোধী, যেটিতে একটি অনন্য, সঠিক উত্তরের মাধ্যমে সমস্যাগুলির সমাধান করা হয়| মুখস্থ করে শেখা প্রকৃতরূপে অভিসারী চিন্তাধারাকে উৎসাহিত করতে দেখা গেছে| যখন এটিকে শিক্ষণের একমাত্র শিক্ষার পদ্ধতি হিসাবে ব্যবহার করা হয় তখন এটি কোন শিশুর বিপথগামী চিন্তাধারার দক্ষতার উন্নয়নের অবজ্ঞা করে, যার ফলে তার সৃজনশীল চিন্তার সক্ষমতা হ্রাসপ্রাপ্ত হয়| [2]

স্কুলে, অধিকাংশ প্রোজেক্ট এবং অ্যাসাইনমেন্ট শিশুর কোন সমস্যার সমাধান করার গতি বাড়ানোর উপর মনোযোগ দেয়| সেগুলি সমস্যার বৈকল্পিক (এবং, সম্ভবত, আরো সৃজনশীল) সমাধানের উপর মনোযোগ দেওয়ার পরিবর্তে সমাধানে তাড়াতাড়ি পৌঁছানোর উপর মনোযোগ দেয়|

এইভাবে মুখস্থ করে শেখা সূচিত করে যে প্রত্যেক সমস্যার মাত্র একটি "সঠিক" সমাধান আছে এবং কেন্দ্রবিন্দু হল যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সেই উত্তর প্রাপ্ত করা| দীর্ঘ মেয়াদে এটি ছাত্রদের সম্ভাবনাগুলির সীমানা অন্বেষণ করতে নিরুসাৎহিত করে এবং প্রত্যেক সমস্যা ও পরিস্থিতির সৃজনশীল পদ্ধতিতে সমাধান করার তাদের সক্ষমতাকে কম করে|

Tমুখস্থ করে শেখার সবচেয়ে স্পষ্ট পরিনাম হল যে এটি কোন বিষয়ের প্রতি ছাত্রের উৎসাহকে দুর্বল করে| কিছু জিনিসগুলিতে নিপুন হওয়ার জন্য ব্যবহার করা শিক্ষণ পদ্ধতির ক্ষেত্রে শিক্ষাবিদরা ড্রিল এবং কিল ফ্রেজ ব্যবহার করে| উদাহরণস্বরূপ:

1.দেহে বিদ্যমান পেশী এবং হাড়ের তালিকা

2.গুনিতক সারণী

3.উপাদানের পিরিওডিক টেবিল 

অনেক শিক্ষাবিদরা ড্রিল এবং কিল পদ্ধতিকে খারিজ করে কারণ এটি গভীর, ধারণামূলক শিক্ষার পরিবর্তে মুখস্থ করা অথবা মুখস্থ করে শেখা কে প্রবর্তিত করে| এটি ছাড়া, এটি ছাত্রদের বিষয়বস্তুর নিশ্চেষ্ট ভোক্তা বানিয়ে দেয়, যেটির কারণে তারা উদাস, অবসন্ন এবং বেশি গুরুত্বপূর্ণভাবে শিখতে অনিচ্ছুক হয়ে যায়| [3]

যদিও এই প্রবন্ধটি সংক্ষিপ্তভাবে মুখস্থ করে শেখার সৃজনশীলতার ওপরে প্রভাবকে অনুসন্ধান করে, এটি বরং তুসারস্তুপের ডগামাত্র| মুখস্থ করে শেখা শিশুদের সৃজনশীল চিন্তাকে প্রভাবিত করে কারণ এটি “বোঝার” থেকে বেশি “জানার” জন্য উৎসাহিত করে, যেরূপ নিম্নে প্রদত্ত ভিডিও তে দেখা যাচ্ছে|

একটি প্রত্যক্ষকরণ সার্ভে প্রদর্শন করে যে সমগ্র দেশে প্রায় 80% স্কুলের অধ্যক্ষরা শিক্ষার খারাপ স্থিতির জন্য মুখস্থ করে শেখাকে দোষারোপ করে| অভিভাবক হিসাবে, আপনার শিশুকে আলোচনায় অংশগ্রহণ করার জন্য, অনলাইন পাঠ গ্রহণ করার জন্য এবং পারস্পরিক আলোচনার মাধ্যমে শেখার জন্য উৎসাহিত করে এটির বিরোধ করতে পারেন কারণ এটি মুখস্থ করে শেখার থেকে বেশি ভালো বিকল্প রূপে দেখা গেছে|